রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
দাওয়াত ও তাবলীগে আলেমদের ভূমিকা অপরিসীম: মাওলানা আব্দুল মালেক (দাঃবাঃ) শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের দ্বীনি দায়িত্ব ধর্ম মন্ত্রণালয়ের স্থগিত করা প্রজ্ঞাপন দেখিয়ে সাদপন্থীদের ধোঁকাবাজি শুরাই নেজামের তাবলীগের সাথীদের নামে আবারও অপবাদ দিচ্ছে সাদ পন্থীরা। আসলে কে দায়ী? শুরাই নেজামের অধিনে শেষ হলো বুরকিনা ফাসো ইজতেমা শুরাই নেজামের অধিনে চলছে আইভরি কোষ্ট ও বুরকিনা ফাসো ইজতেমা ময়মনসিংহে মাদরাসাছাত্রদের ওপর সাদপন্থীদের হামলা, আহত ১২ (ভিডিও সহ) আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (রহঃ) জীবনী ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল। মাসিক আলকাউসারের পরিচিতি বড়দের সান্নিধ্যে কিছু সময় এবং তাদের নেক তাওয়াজ্জুহ ও দোয়া
শুরাই নেজামের তাবলীগের সাথীদের নামে আবারও অপবাদ দিচ্ছে সাদ পন্থীরা। আসলে কে দায়ী?

শুরাই নেজামের তাবলীগের সাথীদের নামে আবারও অপবাদ দিচ্ছে সাদ পন্থীরা। আসলে কে দায়ী?

১লা ডিসেম্বর ২০১৮ সালে সাদ পন্থীরা যখন তাবলীগের নিরীহ সাথী ও মাদ্রাসার ছাত্রদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়, এরপর থেকেই বাংলাদেশের বিভিন্ন মসজিদে সাদপন্থীদের বিভিন্ন কার্যক্রম নিষিদ্ধ করে দেয় মসজিদের কমিটি ও স্থানীয় বাসিন্দারা।

উপরে কয়েকটি মসজিদের মসজিদ কমিটির সিদ্ধান্ত দেখানো হয়েছে

ব্যতিক্রম ঘটেনি, টঙ্গী ইসলামপুর (দত্তপাড়া) আলম মার্কেট এলাকার বায়তুস সালাম জামে মসজিদে।
উক্ত মসজিদের কমিটির এক সদস্য জানান, লকডাউন এর পরে আমাদের মসজিদের কমিটির সদস্যরা মিলে আমরা সিদ্ধান্ত নেই যে, সরকারি বিধিনিষেধ মেনে এই মসজিদে তাবলীগের কার্যক্রম ওলামায়ে কেরামের অনুসারীদের অধিনে চলবে। এরপর থেকে ওলামায়ে কেরামদের যারা অনুসরণ করে (তাবলীগের শুরাপন্থী) তারা বসেই তালিম মাশোয়ারা করে আসছিলো। সাদপন্থীরা গত দুইদিন যাবত হঠাৎ করেই কমিটির অনুমতি ছাড়া তালিম শুরু করে দিয়েছে। মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে সাদপন্থীদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে, তোমরা মসজিদ কমিটির অনুমতি ছাড়া এখানে বসোনা, বসলে তোমাদের ভিতর সংঘর্ষ হতে পারে। মসজিদ কমিটির নিষেধ সত্ত্বেও তারা আবার গতকাল (সোমবার) আসে এবং মসজিদে যারা আমল করছিলো তাদের উপর চড়াও হয়। এতে মসজিদের মুসল্লিরা উত্তেজিত হয়ে যায়। সময়টা সোমবার এশার নামাজের পরের ঘটনা ছিল। এটা দেখে আমরা ২ গ্রুপকেই মসজিদ থেকে বের করে দেই। এরপর বাইরে কি হয়েছে তা আমরা জানিনা। আমি মসজিদের সভাপতি সাহেব এবং আরেকজন কমিটির মেম্বার আমরা মসজিদের ভিতরেই ছিলাম।

এ ঘটনায় তাবলীগের দু’টি গ্রুপের মধ্যে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। উত্তেজনা নিরসনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। সোমবার রাতেই গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের দক্ষিণ জোনের ডিসিসহ পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন।

শুরাই নেজামের সাথী মজিবুর রহমানের জানান, ‘সাদপন্থীদের সকল কার্যক্রম মসজিদ কমিটির নিষেধ করা সত্ত্বেও তারা মসজিদে জোড় করে কাজ করতে আসায় এই অশান্ত পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। উভয় পক্ষের মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা চলছে।

অন্যদিকে মাওলানা জুবায়ের সাহেবের বদনাম করার জন্য, তার নাম কে ব্যবহার করে বারবারই একটি কুচক্রী মহল জুবায়ের পন্থী নামে ১টি জামাতের নামকরন করতে চায়। অথচ, জুবায়েরপন্থী বলতে কোন কিছু দুনিয়াতে নেই। বিস্তারিত ভিডিওতে –

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর-রাহা সেবাই আমাদের ধর্ম।

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট



©Copyright 2020 Sathivai.com
Desing & Developed BY sayem mahamud